• শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১১:০২ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
ব্রেকিং নিউজঃ
বাগমারায় বজ্রপাতে প্রাণ গেল দুর্গাপুরের দুই যুবকের পঞ্চগড়ে করোনা সংক্রামণ ও প্রতিরোধ কমিটির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রহনপুরে ভারতীয় হনুমানের কামড়ে আহত ১ নাচোলে ধান কাটতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ শ্রমিক,আহত ১০ জয়নগরবাসীর সাথে চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ ফিরোজ আহমেদের ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় বাংলাদেশ হিন্দু যুব পরিষদের আশাশুনি উপজেলা শাখার কমিটি গঠন মধুপুরের বহুল আলোচিত পুলিদা হত্যা মামলার প্রধান আসামি ৪১দিন পর গ্রেফতার পঞ্চগড়ের বোদায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু নড়াইলে ঈদ ভ্রমণে গিয়ে নসিমন দুর্ঘটনায় নিহত ১, আহত ৩ পঞ্চগড়ে সিএনজি মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে ৫ জন আহত
নোটিশঃ
যুগান্তর টাইমস - এ সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...




বদলগাছীর কোলা ইউপি সচিব আঞ্জুমানারা বেগম হয়রানি করছে সেবা প্রার্থী সাধারণ মানুষকে

পিন্টু হোসেন,বদলগাছি(নওগাঁ) / ১১৫৫ বার পড়া হয়েছে
প্রকাশিত হয়েছে : সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০




নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলার কোলা ইউনিয়নের সচিব মোসাঃআঞ্জুমানারা বেগম অত্র এলাকার সাধারণ মানুষকে সেবা প্রদান না করে হ-য-ব-র-ল বলে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করছেন।কোলা ইউনিয়নের বেশির ভাগ মানুষ কৃষিজীবি। এই সাধারণ কৃষকরা কোন কাজে ইউনিয়ন পরিষদে গেলে পরতে হচ্ছে নানা মুখি ভোগান্তিতে।সরকারী সেবার নামে বারংবার হয়রানি করছে সাধারণ মানুষকে।বদলগাছীর কোলা ইউনিয়নের কোন স্থায়ী বাসিন্দা তাদের নাগরিক সনদ,জন্ম নিবন্ধন,মৃত্যুর সনদ, ওয়ারিসান সনদ ইত্যাদি নিতে গেলে তিনি কারো সাথে স্বাভাবিক আচারণ করেন না।প্রতিটি সেবা প্রার্থী তার কাছে যেন অনিহার পাত্র।কোলা ইউনিয়নের কয়াভবানীপুর গ্রামের সুজাউল ইসলাম বলেন জন্ম নিবন্ধন সনদ করার জন্য তাকে গত দুই দিন ধরে হ-য-ব-র-ল বলে ঘুরাচ্ছে।সুজাউল ইসলাম বলেন আমার কাছে হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন আছে যেখানে ঐ সময়ের চেয়ারম্যান ও সচিবের স্বাক্ষর আছে।আমি ঐ হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার জন্য এসেছি কিন্তু সচিব দিতে রাজি হচ্ছে না। এমনকি ঐ জন্ম নিবন্ধন দিতে চেয়ারম্যান ও মেম্বার সম্মতি প্রদান করলে ও সচিব কাজটি ফেলে দেন।সেবা প্রার্থী সুজাউল জন্ম নিবন্ধন না পেয়ে বাড়ি ফিরে আসেন।

একটু পর কথা হয় ইসমাইলপুর গ্রামের মোঃতুহিন হোসেনের সাথে তিনি বলেন আমার ভাগ্নে,ভাগ্নির জন্ম নিবন্ধন নেবার জন্য গত তিন দিন হতে ঘুরছি সচিব কোন দিন বলছে টিকার কার্ড লাগবে আবার কোন দিন বলছে কার্ড এটা হবে না।তিনি বলেন বাংলাদেশের কোন ইউনিয়নে বোধহয় সাধারণ মানুষকে এতো হয়রানি করে না।
এ ঘটনার পর খোঁজ নিয়ে জানা যায় কোলা ইউনিয়নের সচিব মোসাঃ আঞ্জুমানারা বেগম প্রতিটি সাধারণ মানুষের সাথে এরুপ আচারণ করে থাকেন।
সেবা প্রার্থী সাধারণ মানুষকে কেন তিনি এভাবে হয়রানির স্বীকার করছেন? এমন আচারণ করলে সাধারণ মানুষের মাঝে সরকারী সেবা নিয়ে অনিহা দেখা দিবে বলে মনে করছেন সাধারণ মানুষ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর
error: Content is protected !!
error: Content is protected !!